Home / চিত্র-বিচিত্র / আজব গ্রাম, অধিকাংশ মানুষেরই ১টি কিডনি!

আজব গ্রাম, অধিকাংশ মানুষেরই ১টি কিডনি!

Loading...

আল্লাহ পাক প্রতিটি মানুষের দেহ দু’টি কিডনি দিয়ে তৈরি করেছেন। তবে দু’টি কিডনি দিয়েছেন যাতে কোন কারণ বসতো যদিএকটি নষ্ট হয়ে যায়, তাহলে অন্যটির সাহায্যে বেঁচে থাকা যাবে। শরীরের অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ এই অঙ্গটি আজব একটি গ্রামের মানুষ হরহামেশায় বিক্রি করে দিচ্ছেন। বিক্রি করতে করতে পুরো গ্রামের অধিকাংশ মানুষেরই এখন একটা কিডনি ভাবা যায়! ঘটনাটি ঘটেছে নেপালের প্রত্যন্ত একটি গ্রামে। কিডনি বিক্রির কারণে গ্রামের নামই হয়ে গেছে ‘কিডনি গ্রাম’।

 

 

 

 

 

সেখানে নাকি বেশির ভাগ মানুষই একটা নিয়ে দিন যাপন করছেন! নবীন-প্রবীণ সকলেরই এক অবস্থা। কয়েক দশক ধরে গ্রামের চিত্রটা ঠিক এই রকম। কিন্তু কেন? অল্প কয়েকটি পরিবার নিয়ে গড়ে উঠেছে গ্রামটি। নিত্য দারিদ্র এই গ্রামের সঙ্গী। এক গ্রামবাসী জানান, গ্রামের এই পরিস্থিতির সুযোগ নিতে হাজির হয় এক দল অসাধু ব্যবসায়ী। না কোনও মাদক পাচারের জন্য নয়, কিডনির ব্যবসার জন্য! ওই ব্যবসায়ীরা গ্রামবাসীদের মোটা টাকার লোভ দেখিয়ে কিডনি বিক্রিতে উত্সাহ দিতে শুরু করে।

Loading...

 

 

সেই ফাঁদে পা দেন গ্রামবাসীরা। শুরু হয় কিডনি বিক্রির হিড়িক। একটি কিডনি বিক্রি করে যদি হাতে মোটা টাকা আসে তাতে ক্ষতি কী! এই চিন্তা করেই কিডনি বিক্রির খাতায় নাম লেখাতে শুরু করেন যুবক-যুবতী থেকে প্রৌঢ়ারা। কেউ হাতে পেয়েছেন লাখ টাকা, কেউ বা ৮০ হাজার। ওই গ্রামবাসী জানান, টাকার অঙ্কটা লাখ খানেকের মধ্যেই সীমাবদ্ধ। আরও এক গ্রামবাসী কেতন তামাঙ্গের কথায়, “ছোট্ট একটা অস্ত্রোপচার। দু’দিন পর ধরাই যাবে না যে শরীরের একটা অংশ বাদ গিয়েছে।”

 

 

আর এই কিডনি বিক্রিটা নাকি এখন প্রায় রীতিতে বদলে গিয়েছে। যখনই টাকার দরকার হয় বাড়ির কোনও না কোনও সদস্য কিডনি বিক্রি করেন। তিনি আরও জানান, জীবনের ঝুঁকি তো রয়েইছেই, কিন্তু যেখানে মোটা টাকা পাওয়া যাচ্ছে, কিডনি বিক্রির হিড়িক বাড়বে না কেন!

About Bangla News Live Admin

Check Also

0552

সিনিয়র এক্সিকিউটিভ থেকে এখন রিকশাচালক

Loading... মানুষ ভাগ্য পরিবর্তনের চেষ্টা করে। সেই চেষ্টার ফসল হিসেবে স্রষ্টা মানুষের ভাগ্য পরিবর্তন করেন। …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *